কলেজ পড়ুয়াদের ভাগ্য খুলছে

কলেজ
পড়ুয়াদের ভাগ্য খুলছে। এবার
তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের
ডিগ্রি অর্জন করতে যাচ্ছেন।
পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ
অনার্স পাঠদানকারী সরকারি
কলেজগুলো ভাগাভাগি করে
নিতে রাজি হয়েছে। এর
ফলে এখন ১৮১টি সরকারি কলেজ
বিভাগীয় শহরে অবস্থিত
পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের
অধীনে চলে যাবে। এসব
কলেজে বর্তমানে প্রায় ১৩লাখ
শিক্ষার্থী লেখাপড়া করছে।
সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন হলে এসব
শিক্ষার্থী পাবলিক
বিশ্ববিদ্যালয়ের সনদ পাবে।
ফলে তাদের
গ্রহণযোগ্যতা বাড়বে বলে মনে
করেন ইউজিসির চেয়ারম্যান।
এব্যাপারে ৮ সদস্যের
একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।
কমিটিকে একমাসের
মধ্যে তাদের বিস্তারিত
প্রতিবেদন দাখিল করতে হবে।
রোববার বিশ্ববিদ্যালয়
মঞ্জুরি কমিশনে (ইউজিসি)
সংস্থাটির চেয়ারম্যান প্রফেসর
ড. একে আজাদ চৌধুরীর
সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায়
সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের
ভিসিরা তাদের এই মতামতের
কথা জানিয়েছেন।
পাশাপাশি নিজ নিজ
সিন্ডিকেটে আলোচনা করে
চূড়ান্ত মতামত জানানোর জন্যও
ভিসিদের নির্দেশনা দেয়া হয়
সভা থেকে। সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত
করার আগে ‘তৃতীয়বার’
কোনো ভুল হচ্ছে কি না- এই
বিষয়টিও
ভালোভাবে পর্যালোচনা করার
জন্য কয়েকজন পরামর্শ দিয়েছেন।
জানা গেছে, জাতীয়
বিশ্ববিদ্যালয়ের দীর্ঘদিনের
সেশনজট ও শিক্ষার গুণগতমান
উন্নীতকল্পে গত ৩১ আগস্ট
শিক্ষা মন্ত্রণালয়
পরিদর্শনকালে প্রধানমন্ত্রী
সরকারি কলেজগুলো বিভাগীয়
শহরের পাবলিক
বিশ্ববিদ্যালয়ের
অধীনে ছেড়ে দেয়ার
দিকনির্দেশনা দেন। এই
নির্দেশনা বাস্তবায়নের
লক্ষ্যে গত ৫ নভেম্বর
শিক্ষা মন্ত্রণালয়
থেকে ইউজিসিতে পত্র
দেয়া হয়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে এ
সভাটি ডাকা হয়।
উল্লেখ্য, জাতীয়
বিশ্ববিদ্যালয়ের
অধীনে সারাদেশে ২৫শতাধিক
কলেজ রয়েছে। এরমধ্যে ২হাজার
১৫৪টিতে অনার্স, ডিগ্রি ও
মাস্টার্স পর্যায়ের পাঠদান
করা হয়ে থাকে।
এরবাইরে ৩৮২টি প্রতিষ্ঠানে
শিক্ষক প্রশিক্ষণ, স্বাস্থ্য
ইন্সটিটিউট, তথ্যপ্রযুক্তি, আইনসহ
বিভিন্ন ধরণের পেশাগত
ডিগ্রি প্রদান করা হয়ে থাকে।
এগুলোতে বর্তমানে সর্বমোট
প্রায় ২১ লাখ
শিক্ষার্থী লেখাপড়া করছে।
মোট কলেজের
মধ্যে সারাদেশে অনার্স ও
মাস্টার্স পাঠদান করা হয় এমন
কলেজ ৫৫৫টি।
এরমধ্যে সরকারি কলেজ
রয়েছে ১৮১টি। এসব
কলেজে প্রায় ১৩লাখ
শিক্ষার্থী লেখাপড়া করছে।
বাকিগুলো বেসরকারি কলেজ।
তার মানে সিদ্ধান্ত কার্যকর
হলে ১৩ লাখ শিক্ষার্থীর ভাগ্য
খুলে যাবে।
তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের সনদ
পাবেন।
জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের
ভিসি প্রফেসর ড. হারুন-অর-রশীদ
প্রধানমন্ত্রীর
দেয়া দিকনির্দেশনার
সঙ্গে একমত পোষণ করে জানান,
‘এ
দিকনির্দেশনা তিনি শিক্ষার
প্রতি নিজের গভীর অনুরাাগ
থেকে দিয়েছেন। দ্বিমত
পোষণের কোনো অবকাশ নেই।’
এসময় তিনি বলেন, “জাতীয়
বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে ‘সেশন
জট’ ও ‘দুর্নীতি’ এই দু’টো সাধারণ
অভিযোগ হয়ে দাঁড়িয়েছে।
আমি যোগদানের পর বিগত
২০মাসে এসব কমিয়ে আনার
লক্ষ্যে ব্যাপক পদক্ষেপ নিয়েছি।
এসময় বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়
এবং খুলনা প্রকৌশল ও
প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের
ভিসিসহ কয়েকজন প্রায় একমত
পোষণ করে বলেন, এ
ব্যাপারে আমরা একমত।
এমনকি আমাদের
অধীনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান
দেয়া হলে তা তদারকিতেও
প্রস্তুত। তবে ‘তৃতীয়বার’
কোনো ভুল হচ্ছে কিনা,
সে ব্যাপারে ভালোভাবে
পর্যালোচনা করা প্রয়োজন।
সভায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের
ভিসি প্রফেসর আআমস আরেফিন
সিদ্দিকসহ প্রায় সব ভিসিই
সিদ্ধান্তের সঙ্গে একমত পোষণ
করেন। প্রফেসর আরেফিন সিদ্দিক
বলেন,সরকারি অনার্স ও মাস্টার্স
কলেজগুলোকে পাবলিক
বিশ্ববিদ্যালয়ের
অধীনে আনা অতিব জরুরি।
কেননা, এসব
কলেজে দেয়া শিক্ষার মান
নিয়ে প্রশ্ন রয়েছে।
এদিকে সিদ্ধান্ত দ্রুত
বাস্তবায়নের জন্য ৮ সদস্যের
একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে।
ইউজিসি সদস্য প্রফেসর ড.
মোহাম্মাদ মোহাব্বত
খানকে আহবায়ক করে গঠিত এই
কমিটির সদস্য সচিব
করা হয়েছে ইউজিসি’র পাবলিক
বিশ্ববিদ্যালয় বিভাগের
অতিরিক্ত পরিচালক ফেরদৌস
জামানকে। কমিটির অন্য
সদস্যরা হলেন – ইউজিসি সদস্য
প্রফেসর ড. আবুল হাশেম,
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের
ভিসি প্রফেসর ড. আ আ ম স
আরেফিন সিদ্দিক,
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের
ভিসি প্রফেসর ড. মুহম্মদ
মিজানউদ্দিন, চট্টগ্রাম
বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর
মোঃ আনোয়ারুল আযীম আরিফ,
জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের
ভিসি প্রফেসর ড.
ফারজানা ইসলাম, ইউজিসি সচিব
ড. মোঃ খালেদ।

তথ্য কণিকা

A Poor Servant of Almighty🙂

Tagged with: , , , , , , , , ,
Posted in ভিন্ন খবর

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Translate
ব্লগ বিভাগ
রেফার লিঙ্কঃ

হ্যালো! এই লিংক থেকে বিকাশ অ্যাপ ডাউনলোড করে, প্রথমবার লগ ইন করুন। আপনি চলমান প্রথম অ্যাপ লগ ইন বোনাসের সাথে ২০টাকা এক্সট্রা বোনাস পাবেন। শর্ত প্রযোজ্য। ডাউনলোডঃ

https://www.bkash.com/app/?referrer=uuid%3DC1DPI569J

 

 

ব্লগ সংকলন
Follow Aimnote.TK on WordPress.com
%d bloggers like this: