আর কত দেরি, পাঞ্জেরি

১.
আদালত বলছেন লোকটি যুদ্ধাপরাধী।
সরকার বলছে লোকটি রাজাকার, খুনী,
ধর্ষণকারী।
সুশীলদের একাংশ
বলছে লোকটি ঘাতকদের সর্দার।
মিডিয়া বলছে স্বাধীনতাবিরোধীদের
শিরোমণি।
২.
কিন্তু জানাজায় উপস্থিত
শত শত নয়, হাজার হাজার নয় রীতিমত কয়েক লক্ষ
মানুষ হুঁ হুঁ
করে কাদঁছে লোকটার জন্য।
বলছে তিনি শুধু বাংলাদেশের নয়
বরং বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর অন্যতম
নেতা। তাঁর বিরুদ্ধে যা বলা হচ্ছে তা সঠিক নয়।
ঘটনাস্থল বায়তুলমোকাররম উত্তর গেইট । সময়
আজ বাদে জোহর।
এ ছাড়া আল
জাজিরা টিভিতে দেখলাম আরো বেশ
কয়েকটি মুসলিম দেশে লোকটির
গায়েবানা জানাজা হচ্ছে।
৩.
একাত্তরে আমার জন্ম হয়নি। এ জন্য
আমি মুক্তিযুদ্ধ দেখিনি। আমি সবুজ
শ্যামল এই দেশটাকে প্রাণের
মতো ভালবাসি।
আমি একজন মুসলিম। একই সাথে একজন
বাংলাদেশীও।
এখন আমরা যারা তরুণ, যুবক আমরা কোন
দিকে যাব। কার কথা বিশ্বাস করবো?
৪.
আমি বা আমরা দেখলাম
যারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ধারক বাহক
তারাই সবচেয়ে বেশী গণতন্ত্রকে ধর্ষণ
করেছে। লুটপাট করেছে।
জাতীকে নিয়ে ছিনিমিনি খেলেছে।
অথচ বই পুস্তকে পড়েছি, মুক্তিযুদ্ধ
হয়েছিল শোষকের করাল গ্রাস
থেকে এই ভূখন্ডের
মানুষকে মুক্তি দেয়ার জন্য।
মানুষের মৌলিক অধিকারের জন্য।
ভালভাবে খেয়ে পরে বেঁচে থাকার
জন্য।
পাক হানাদার বাহিনীর
সর্বগ্রাসী হাত থেকে আমাদের
মা বোনের ইজ্জত-আব্রু রক্ষার জন্য।
কিন্তু আমি বা আমরা নতুন প্রজন্ম
কি দেখছি?
৫.
একটা প্রশ্নের উত্তর
এখনো খুঁজে পাইনি, কেন মুক্তিযুদ্ধ
এবং ইসলামকে মুখোমুখী দাঁড় করাবার এ
সর্বনাশা সুদূর প্রসারী আয়োজন ? এর
পেছনে কারা।
আমি মুসলিম ঘরে জন্ম লাভ করে যেমন
রবের দরবারে কৃতজ্ঞ তেমনি একজন
বাংলাদেশী হিসেবে বুক
ফুলিয়ে গর্ববোধ করি।
৬.
ফেসবুকে দেখলাম কেউ কেউ স্ট্যাটাস
আপডেট করছেন, লোকটির ঘৃণ্য নামটাও
কেউ আগামীতে রাখবেনা।
আবার দেখলাম, কেউ কেউ লোকটার
অনুসারী হতে পেরে গর্ববোধ করছে শুধু
তা নয় তাঁর রেখে যাওয়া কঠিন কাজ
আঞ্জম দেয়ার জন্য জীবন
বাজি রেখে দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।
৭.
আমরা তরুণ। এভাবে আর দোদুল্যমান
থাকতে চাইনা। আমরা সত্যের চূড়ান্ত
বিজয় চাই। সত্যিকার অর্থেই
স্বাধীনতা চাই। প্রকৃত শান্তি চাই।
বাস্তবিকই সমৃদ্ধ বাংলাদেশ
গড়তে চাই। এ জন্য নতুন
করে ভাবতে হবে।
একদল প্রজ্ঞাবান
যুবককে এগিয়ে যেতে হবে। উত্থাল
সাগরে শক্ত হাতে ডুবন্ত তরীর হাল
ধরতে হবে।
যত টর্নেডো-ঝড়-তুফানই আসুকনা কেন
দেশতরী যাতে ডুবে না যায়।
৮.
আচ্ছা, আমরা কি সেই কাংখিত মাঝির
আবির্ভাবের আশায় বুক বাধতে পারি?
উত্তর যদি হ্যাঁ হয় তাহলে সেটা কবে?
আর কত সময় নিবে হে মাঝি ???

Fb.com/netfuker

Advertisements

Ainul Islam munna. student.living in Chittagong, Bangladesh. fan of technology, photography, and music.interested in cricket and travel.

Posted in সমালোচনা

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

ব্লগ বিভাগ
ব্লগ সংকলন
%d bloggers like this: