বিজ্ঞান——কুরআন

১ – বিজ্ঞান কিছুদিন
আগে জেনেছে চাঁদের নিজস্ব
কোন আলো নেই।
সূরা ফুরক্বানের ৬১
নং আয়াতে কুরআনে এই
কথা বলা হয়েছে প্রায় ১৪০০ বছর আগে। ২ – বিজ্ঞান মাত্র দুশো বছর
আগে জেনেছে চন্দ্র এবং সূর্য
কক্ষ পথে ভেসে চলে…
সূরা আম্বিয়া ৩৩
নং আয়াতে কুরআনে এই
কথা বলা হয়েছে প্রায় ১৪০০ বছর আগে। ৩ – সূরা কিয়ামাহ’র ৩ ও ৪
নং আয়াতে ১৪০০ বছর আগেই
জানানো হয়েছে; মানুষের
আঙ্গুলের ছাপ
দিয়ে মানুষকে আলাদা ভাবে সনাক্ত
করা সম্ভব। যা আজ প্রমাণিত। ৪ – ‘ বিগ ব্যাং’
থিওরি আবিষ্কার হয় মাত্র
চল্লিশ বছর আগে।
সূরা আম্বিয়া ৩০
নং আয়াতে কুরআনে এই
কথা বলা হয়েছে প্রায় ১৪০০ বছর আগে। ৫ – পানি চক্রের
কথা বিজ্ঞান
জেনেছে বেশি দিন হয় নি…
সূরা যুমার ২১
নং আয়াতে কুরআন এই
কথা বলেছে প্রায় ১৪০০ বছর আগে।
৬ – বিজ্ঞান এই সেদিন
জেনেছে লবণাক্ত পানি ও
মিষ্টি পানি একসাথে মিশ্রিত
হয় না। সূরা ফুরকানের ২৫
নং আয়াতে কুরআন এই কথা বলেছে প্রায় ১৪০০ বছর
আগে।
৭ – ইসলাম আমাদেরকে ডান
দিকে ফিরে ঘুমাতে উৎসাহিত
করেছে; বিজ্ঞান এখন
বলছে ডান দিকে ফিরে ঘুমালে হার্ট সব
থেকে ভাল থাকে।
৮ – বিজ্ঞান এখন আমাদের
জানাচ্ছে পিপীলিকা মৃত
দেহ কবর দেয়, এদের বাজার
পদ্ধতি আছে। কুরআনের সূরা নামল এর ১৭ ও ১৮
নং আয়াতে এই
বিষয়ে ধারণা দেয়।
৯ – ইসলাম মদ পানকে হারাম
করেছে , চিকিৎসা বিজ্ঞান
বলছে মদ পান লিভারের জন্য ক্ষতিকর।
১০ – ইসলাম শুকরের
মাংসকে হারাম করেছে।
বিজ্ঞান আজ বলছে শুকরের
মাংস লিভার, হার্টের জন্য
খুবই ক্ষতিকর। ১১- রক্ত পরিসঞ্চালন
এবং দুগ্ধ উৎপাদন এর
ব্যাপারে আমাদের
চিকিৎসা বিজ্ঞান
জেনেছে মাত্র কয়েক বছর
আগে। সূরা মুমিনূনের ২১ নং আয়াতে কুরআন এই
বিষয়ে বর্ণনা করে গেছে।
১২ – মানুষের জন্ম তত্ব ভ্রুন
তত্ব সম্পর্কে বিজ্ঞান
জেনেছে এই কদিন আগে।
সূরা আলাকে কুরআন এই বিষয়ে জানিয়ে গেছে ১৪০০
বছর আগে।
১৩ – ভ্রন তত্ব নিয়ে বিজ্ঞান
আজ জেনেছে পুরুষই ( শিশু
ছেলে হবে কিনা মেয়ে হবে)
তা নির্ধারণ করে। ভাবা জায়… কুরআন এই
কথা জানিয়েছে ১৪০০ বছর
আগে। ( সূরা নজমের ৪৫, ৪৬
নং আয়াত, সূরা কিয়ামাহ’র
৩৭- ৩৯ নং আয়াত)
১৪ – একটি শিশু যখন গর্ভে থাকে তখন
সে আগে কানে শোনার
যোগ্যতা পায় তারপর পায়
চোখে দেখার। ভাবা যায়?
১৪০০ বছর আগের এক
পৃথিবীতে ভ্রুনের বেড়ে ওঠার স্তর
গুলো নিয়ে কুরআন বিস্তর
আলোচনা করে। যা আজ
প্রমাণিত ! ( সূরা সাজদাহ
আয়াত নং ৯ , ৭৬
এবং সূরা ইনসান আয়াত নং ২ ) ১৫ – পৃথিবী দেখতে কেমন? এক
সময় মানুষ মনে করত
পৃথিবী লম্বাটে, কেউ ভাবত
পৃথিবী চ্যাপ্টা ,
সমান্তরাল… কোরআন ১৪০০
বছর আগে জানিয়ে গেছে পৃথিবী দেখতে অনেকটা উটের
ডিমের মত গোলাকার।
১৬ – পৃথিবীতে রাত এবং দিন
বাড়া এবং কমার রহস্য মানুষ
জেনেছে দুশ বছর আগে।
সূরা লুকমানের ২৯ নং আয়াতে কুরআন এই
কথা জানিয়ে গেছে প্রায়
দেড় হাজার বছর আগে !! আমাদের সমস্যা হল আমরা সব
কিছুই জানি… যারা নাস্তিক
তারাও জানে… পার্থক্য
টা হল ‘ বোধ’ … যেমন ধরুন একজন নেশাকর
জানে যে নেশা করলেই তার
জীবন নষ্ট হয়ে যাবে,
যে ছেলে বাবা কে খুন
করেছে সে জানে যে এই
মানুষটি তাকে জন্ম দিয়েছে… সব জেনে শুনেই আমরা সব
থেকে খারাপ কাজ গুলো করি…
ব্যাপারটা অজ্ঞানতার
না ব্যাপারটা ‘ বোধ’ এর।
… আপনার এই
বোধটা থাকতে হবে। সব মানুষের
ভেতরে দুটি মানুষ থাকে।
মাঝে মাঝে একজন
মনে করিয়ে দেয়- নামাজ
পড়া জরুরী তখন আরেকজন
বলে –আজ না; কাল থেকে শুরু করব

Advertisements

Ainul Islam munna. student.living in Chittagong, Bangladesh. fan of technology, photography, and music.interested in cricket and travel.

Posted in কপি-পেস্ট, প্রিয় লেখা

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

ব্লগ বিভাগ
ব্লগ সংকলন
%d bloggers like this: