একটি চাকরির ইন্টারভিউ

Boss :: বসুন। আপনার পরিচয় ?
অবলা পুরুষ :: একজন কর্মক্ষম
চিন্তাশীল সুস্থ মানুষ।
Boss :: মানে ?
অবলা পুরুষ :: এই গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ছাড়া বাকি সব আপনার
সামনে থাকা কাগজে লিখা আছে ।
Boss :: ohh… I see. আমাদের
কোম্পানি choose করলেন কেন ?
অবলা পুরুষ :: চাকরীর বিজ্ঞাপন
দিয়েছিল, এই জন্য। না দিলে আসতাম না।
Boss :: interesting !! চাকরীর
বিজ্ঞাপন তো আরো অনেক
কোম্পানি দিয়েছিল। তাদের
কে ফেলে আমাদেরকে বেছে নিলেন
কেন ?
অবলা পুরুষ :: সবগুলোকেই
বেছে নিয়েছি।
এখানে না হলে অন্যগুলোতে যাব।
Boss :: হুম। আপনার result
তো খারাপ। চাকরী পাবেন
বলে আশা করেন ?
অবলা পুরুষ :: Result খারাপ
হলেও খিদে লাগা বন্ধ হয় নি।
চাকরী একটা করতেই হবে।
তা না হলে, খাবো কি ?
Boss :: (হাসি) আচ্ছা, বলুন
দেখি, Moldova দেশটির রাজধানীর নাম কি ?
অবলা পুরুষ :: Kindly,
আমাকে যদি বলতেন, Moldova
দেশটির আয়তন কত,
তাহলে আমি উত্তরটা বলে দিতে পারতাম।
কারণ, আমার জানা মতে, Moldova নামে দুটি দেশ আছে ।
একটি ছোট, একটি বড়।
Boss :: দুটি দেশ আছে নাকি ?
অবলা পুরুষ :: থাকার তো কথা।
আপনি গুণীজন, জ্ঞানীমানুষ।
আপনার আরো ভাল জানার কথা। Boss :: (কিছুক্ষণ থমকে থাকার
পর)… আচ্ছা থাক। আপনার result
খারাপ হয়েছে কেন ?
অবলা পুরুষ ::
ক্লাসে কারো না কারো result
তো খারাপ হতে হবে। কেউ সামনের সারিতে বসলে,
কাউকে না কাউকে তো পেছনে বসতেই
হবে।
Boss :: এটা কোন
যুক্তি হতে পারে না।
অবলা পুরুষ :: ১০০ জন আইন্সটাইন যদি একই ক্লাসে থাকে, তারপরও
তো কেউ প্রথম হবে।
কাউকে না কাউকে তো last হতেই
হবে।
Boss :: দুনিয়াতে survival of
the fittest . last হওয়া মানুষের কোন দাম নেই।
অবলা পুরুষ :: দুনিয়াতে সব মানুষ
যদি আপনার মত হত,
তাহলে আপনার কোম্পানির জন্য
কোন employee খুঁজে পেতেন না।
আপনার গাড়ি চালক থাকতো না। বাসার কাজের বুয়া আসতো না।
সবাই তাদের নিজ নিজ
কোম্পানির বস হয়ে বসে থাকতো।
Boss :: What do you mean ?
অবলা পুরুষ :: আপনি দাবার
কোর্টের রাজা। আপনি সৈনিক দলের পেছনে মন্ত্রী,
হাতি বা নৌকা-
ঘোড়া নিয়ে বসে থাকেন।
সৈনিকরা একঘর একঘর করে সবার
আগে যায়। তারা আত্মত্যাগ
করে আপনাদের জীবন বাঁচায়। আবার একঘর একঘর করে যখন শেষ
প্রান্তে পৌছায়,
তখনো আত্মউৎসর্গের
মাধ্যমে আপনার বন্ধ বান্ধবের
পুনর্জন্ম দেয়। কারো অবদান কম
নয়। কেউ ছোট হয় বলেই কেউ বড় হতে পারে।
Boss :: ধর,
তোমাকে চাকরী দিয়ে দিলাম।
কত বেতন চাও ?
অবলা পুরুষ :: আমার বয়স
আপনি পার করেছেন। আপনি ভাল করেই জানেন, এই বয়সে কত
হলে ভালভাবে বেঁচে থাকা যায়।
এই বয়সে আপনার যত হলে চলতো,
তত দিবেন।
Boss :: তুমি দেখছি, কোন
প্রশ্নের কোন সোজা উত্তর দিতে পারো না।
অবলা পুরুষ :: সত্য কথা আজকাল
ব্যতিক্রম শুনায়। বিশ্বাস হয়
না।হজম করতে কষ্ট হয়।
মিথ্যা অনেক সহজে হজম হয়।
Boss :: তুমি কি বলতে চাইছ, সত্যের চাইতে মিথ্যার জোর
বেশি।
অবলা পুরুষ :: সত্য স্থায়ী।
মিথ্যা ক্ষণিকের। সত্য ধীর,
কিন্তু মিথ্যা বিষের মত দ্রুত।
Boss :: মানে বুঝলাম না। অবলা পুরুষ :: কখনো বিষ
খেয়েছেন ?
Boss :: What? বিষ খেতে যাব
কেন ?
অবলা পুরুষ :: খেলে বুঝতেন।
গলা দিয়ে নামার আগেই খবর হয়ে যাবে। এতদ্রুত কাজ
করবে যে কল্পনা করতে পারবেন
না। সত্য, প্যারাসিটামলের মত।
খাবার বেশ কিছুক্ষণ পর জ্বর
কমবে। ভাল ওষুধ কাজ করতে বেশ
সময় নেয়। তার কোর্স কমপ্লিট করতে হয়। ৭ দিন, বা ১ মাস।
বিষ একবারই যথেষ্ট।
Boss :: বুঝলাম। you are
interesting. যদিও
তোমাকে চাকরী দেয়া ঠিক নয়।
তারপরও আমি ভেবে দেখব।
অবলা পুরুষ :: ধন্যবাদ। আমি আসি।

Advertisements

Ainul Islam munna. student.living in Chittagong, Bangladesh. fan of technology, photography, and music.interested in cricket and travel.

Posted in প্রিয় লেখা, মজার-জোকস

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

ব্লগ বিভাগ
ব্লগ সংকলন
%d bloggers like this: